এক  মুহুর্ত যদি থামো ,বলতাম ভালোবাসো
এক মুহুর্ত  যদি  দাঁড়াও ,হাত দুটি বাড়িয়ে দিতাম

যে পুড়ছে অবিরত যতুগৃহে,
কাঙ্গাল  সে  কাঙ্গাল  ইন্দ্রধেণু’র ।

“ফুল সে তো গন্ধ ছড়িয়েই খালাস !
পাগল  ভ্রমর আজ মাতাল,  দেবদাস ।”

মধু আলিঙ্গনে দুই বাহু যদি বন্দি বানাতে চায়
অনন্ত জলরাশি ভাসিয়ে নিয়ে যায় !
       এও কি অপরাধ  তার ?

পালকের পরশ লাগে, কাশ ফুলে শিহরন । বসন্ত !
তুমি কবে আসবে ? না  কি এসেই পড়েছ !
বুছতে পারছিনা, দেখতে পাচ্ছি  না ,
চোখ হতে নীল তারা দুটি তুলে নিয়েছো  সেই কবেই,
সেথা এখনো রক্ত ঝরে ।

দেবী , যদি একটু দাঁড়াও ,
না হয় পুজার ছলেই কলিজাটুকুও অরপন করি তোমায়,
        তুমি সন্তুষ্ট হবে তো ?

Tagged with →  
Share →

3 Responses to যদি একটু দাঁড়াও (শুভেন্দু ধাড়া)

  1. admin says:

    শুভেন্দু, আপনার লেখাগুলো খুব ভালো হয়েছে । ভবিষ্যতে আরো লেখা পাঠাবেন আশা করি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *